শুক্রবার, ৩১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

শিল্পকলায় নাচে গানে নবান্ন উৎসব উদযাপন

মঙ্গলবার (১৬ নভেম্বর) পয়লা অগ্রহায়ণ নবান্ন উৎসব-১৪২৮। বরাবরের মত এবারও অগ্রাহায়ণের প্রথম দিনে রাজধানীতে আয়োজন করা হয়েছে নবান্ন উৎসব। আয়োজনে নবান্ন উৎসব উদযাপন পরিষদ।

বাংলার প্রকৃতি এখন হলুদ-সবুজে একাকার। নয়নাভিরাম অপরূপ এর রূপ। সোনালি ধানের প্রাচুর্য। আনন্দধারায় ভাসছে কৃষকের মন-প্রাণ। বাড়ির উঠানে নতুন ধানের মৌ মৌ সুগন্ধ।

এ দিন রাজধানীর শিল্পকলা একাডেমিতে সকাল সাড়ে ৭টায় প্রবীণ শিল্পী গাজী আব্দুল হাকিমের বাঁশি বাদনের মধ্য দিয়ে ‘নবান্ন উৎসব-১৪২৮’ এর শুভ সূচনা হয়। প্রতি বছরের মতো এবারও জাতীয় নবান্ন উৎসব উদযাপন পর্ষদের উদ্যোগে জাতীয় শিল্পকলা একাডেমির কফি হাউস চত্বরের উন্মুক্ত মঞ্চে এ আয়োজন করা হয়েছে। উৎসবে চলছে নাচ, গান, আবৃত্তিসহ বিভিন্ন পরিবেশনা। এছাড়াও রয়েছে মুড়ি, মুড়কি, বাতাসা ও পিঠার আয়োজন।

নবান্ন উৎসব অনাদিকাল থেকে বাঙালির জীবনের অংশ। লোককথায় এদিনকে বলা হয়, বাৎসরিক মাঙ্গলিক দিন। এ সময় নানা ব্যঞ্জনে অন্নাহার, পিঠাপুলির উৎসবে আনন্দমুখর হয় জনপদ। মেয়েকে নাইয়র আনা হয় বাপের বাড়ি। নতুন ধানের ভাত মুখে দেয়ার আগে কোথাও কোথাও মিলাদ, মসজিদে শিরনি দেয়ার রেওয়াজ আছে।

হিন্দু স¤প্রদায়ের কৃষকের ঘরে পূজার আয়োজন চলে ধুমধামে। নবান্ন শব্দের অর্থ নতুন অন্ন। নতুন আমন ধান কাটার পর সেই ধান থেকে চালের প্রথম রান্না উপলক্ষে আয়োজিত উৎসবই নবান্ন। সাধারণত অগ্রহায়ণে আমন ধান পাকার পর এ উৎসব করা হয়। কোথাও কোথাও মাঘেও নবান্ন উদযাপনের প্রথা রয়েছে।

সাধারণত প্রতিবছর চারুকলার বকুলতলায় নবান্ন উৎসবের আয়োজন করা হলেও করোনার কারণে এবার তা সরিয়ে নেয়া হয়েছে। শিল্পকলা একাডেমির খোলা চত্বরে মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে লোক চেতনাকে প্রাধান্য দিয়ে। ব্যবহার করা হয়েছে গ্রামীণ নানা অনুষঙ্গ। সঙ্গীত, নৃত্য ও কবিতার ভাষায় ফসলকেন্দ্রিক অর্থনীতি ফুটিয়ে তোলা হচ্ছে।

এবারের জাতীয় শিল্পকলায় আয়োজিত উৎসবে একক সংগীত পরিবেশন করছেন বরেণ্যে শিল্পী ফাতেমাতুজ জোহরা, শাহীন সামাদ, আবুবকর সিদ্দীকী, বুলবুল মহলানবীশ, মহাদেব ঘোষ, মহিউদ্দিন ময়না, অনীমা রায়, সঞ্জয় কবিরাজ, আরিফ রহমান, নবনীতা যায়ীদ চৌধুরী, শ্রাবণী গুহ, ডা. মাহজবীন শাওলী, সুরাইয়া পারভীন, মারুফ হোসেন, দেবপ্রসাদ দা, অনিমেষ বাউলসহ অনেকে।

দলীয় সংগীত পরিবেশন করেছে বুলবুল ললিতকলা একাডেমি অব ফাইন আর্ট (বাফা) উদীচী, সত্যেন সেন শিল্পীগোষ্ঠী, স্বভূমি লেখকগোষ্ঠী, সমস্বর, উজান, পঞ্চায়েত, উত্তরা কালচারাল সোসাইটি।

একক আবৃত্তি পরিবেশন ছিলেন আহকাম উল্লাহ, রূপা চক্রবর্তী, রেজিনাওয়ালী লিনা, শাহাদাত হোসেন নিপু, মাসকুরে সাত্তার কল্লোল, বেলায়েত হোসেন, ফয়জুল আলম পাপ্পু, নায়লা তারান্নুম কাকলি, আহসান তমাল, আজিজুল বাসার মাসুম, রূপশ্রী চক্রবর্তী।

নবান্ন উৎসব হিন্দুদের একটি প্রাচীন প্রথা। হিন্দুশাস্ত্রে নবান্নের উল্লেখ ও কর্তব্য নির্দিষ্ট করা রয়েছে। হিন্দু বিশ্বাস অনুযায়ী, নতুন ধান উৎপাদনের সময় পিতৃপুরুষ অন্ন প্রার্থনা করে থাকেন। এ কারণে হিন্দুরা পার্বণ বিধি অনুযায়ী নবান্নে শ্রাদ্ধানুষ্ঠান করে থাকেন। শাস্ত্রমতে, নবান্নে শ্রাদ্ধ না করে নতুন অন্ন গ্রহণ করলে পাপের ভাগী হতে হয়। এক সময় অত্যন্ত সাড়ম্বরে নবান্ন উৎসব উদযাপন হতো।

চিত্রজগত/উৎসব

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

এই সপ্তাহের পাঠকপ্রিয়