রবিবার, ১৪ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

ভারতের পাঁচ শতাধিক হলে ‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’

ফাইল ফটো -- চিত্রজগত.কম

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনীনির্ভর ‘মুজিব: একটি জাতির রূপকার’ গত ১৩ অক্টোবর সারা দেশের সিনেমা হলে মুক্তি পায়। মুক্তির দিন থেকেই সাড়া ফেলেছে সিনেমাটি। এদিকে বাংলাদেশের পর ভারতের পাঁচ শতাধিক হলে শুক্রবার (২৭ অক্টোবর) মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটি। তবে ভারতে ‘মুজিব: মেকিং অব আ নেশন’ শিরোনামে মুক্তি পেয়েছে।

এর আগে, বাংলাদেশের অথবা যৌথ প্রযোজনার আর কোনো সিনেমা ভারতের এত সংখ্যক প্রেক্ষাগৃহে একদিনে মুক্তি পায়নি।

এ প্রসঙ্গে বিএফডিসি’র গণসংযোগ কর্মকর্তা হিমাদ্রী বড়ুয়া বলেন, শুক্রবার থেকে চলতি সপ্তাহজুড়ে ভারতের ৫০৩টি প্রেক্ষাগৃহে দৈনিক ৬৮২টি শো প্রদর্শিত হচ্ছে ‘মুজিব: মেকিং অব আ নেশন’ সিনেমাটির। এরমধ্যে মুম্বাইয়ে সর্বোচ্চ ১০৩টি হলে, কলকাতায় ১০০টি এবং দিল্লির ৭৫ হলে মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটি। এভাবে মুক্তির প্রথম সপ্তাহেই ভারতের মোট ১২টি অঞ্চলে মুক্তি পেয়েছে সিনেমাটি।

এর আগে ভারতে মুক্তি উপলক্ষে গত ২৫ অক্টোবর মুম্বাইয়ের ন্যাশনাল মিউজিয়াম অব ইন্ডিয়ান সিনেমার থিয়েটার হলে প্রদর্শিত হয়েছে ‘মুজিব’। এতে সিনেমা সংশ্লিষ্টদের সঙ্গে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ ও ভারতের চলচ্চিত্র উন্নয়ন কর্পোরেশনের দুই ব্যবস্থাপনা পরিচালক নুজহাত ইয়াসমিন ও প্রতুল কুমার। এছাড়াও ভারতে সিনেমাটির বিশেষ প্রদর্শনী দেখতে হাজির হয়েছিলেন বলিউডের কিংবদন্তি অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ থেকে শুরু করে বর্তমান প্রজন্মের তারকা অদিতি রাও হায়দারিসহ অনেকে।

আরও উপস্থিত ছিলেন সংগীত পরিচালক শান্তনু মৈত্র, অভিনেতা রজিত কাপুর, গায়িকা শ্রেয়া ঘোষাল, গুণী অভিনেত্রী দিব্যা দত্ত, দক্ষিণী অভিনেতা সিদ্ধার্থ সূর্যনারায়ণসহ প্রমুখ।

গণমাধ্যমে নির্মাতা শ্যাম বেনেগাল বলেন, অবশ্যই আমি ছবিটি তৈরি করে উপভোগ করেছি। এটা আমার জন্য সম্মানের বিষয় যে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও মুজিব-কন্যাও সিনেমাটি ভীষণ পছন্দ করেছেন।

আরিফিন শুভ বলেন, শ্যাম বেনেগাল স্যারের সঙ্গে এটা আমার চার বছরের একটা জার্নি। যেটা আমি সারা জীবন মনে রাখব। আর এই যে ইতিহাস বা গল্প, এটা শুধু বাংলাদেশের না। ৪৭ থেকে ৫২ এবং এরপর ৭১ সাল, ভারতের সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক অনেক পুরোনো। এটা যদিও আমাদের জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবনী, কিন্তু এখানে এমন অনেক কিছু আছে, যেটা দেখে আপনারা বুঝতে পারবেন দুই দেশ মিলে পরস্পরের জন্য কত কী করেছে।

সিনেমায় বঙ্গবন্ধুর চরিত্রে অভিনয় করেছেন আরিফিন শুভ। এ ছাড়া এতে আরও রয়েছেন, নুসরাত ফারিয়া, নুসরাত ইমরোজ তিশা, রিয়াজ আহমেদ, জায়েদ খান, চঞ্চল চৌধুরী, সিয়াম আহমেদ, খায়রুল আলম সবুজ, ফেরদৌস আহমেদ, দীঘি, রাইসুল ইসলাম আসাদ, গাজী রাকায়েত, তৌকীর আহমেদ, মিশা সওদাগরসহ দেশের শতাধিক শিল্পী।

চিত্রজগত ডটকম/সিনেমা

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

এই সপ্তাহের পাঠকপ্রিয়