মঙ্গলবার, ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

নিপুনের লিভ টু আপিলের শুনানি সোমবার

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি নির্বাচনে জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত স্থগিত করে দেয়া হাই কোর্টের আদেশের বিরুদ্ধে নিপুন আক্তারের লিভ টু আপিলের শুনানির জন্য সোমবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) দিন ধার্য করেছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ। আজ রোববার (১৩ ফেব্রুয়ারি) প্রধান বিচারপতি হাসান ফয়েজ সিদ্দিকীর নেতৃত্বে আপিল বিভাগ এই আদেশ দেন।

এদিন আদালতে নিপুনের আবেদনটি শুনানির জন্য উঠলে তার আইনজীবী ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন বলেন, আমরা হাই কোর্টের আদেশের কপি হাতে পেয়েছি। আজই লিভ টু আপিল (সি.পি) দায়ের করব। আগামীকাল (সোমবার) শুনানি হলে ভাল হয়। তখন আদালত বলেন, তাহলে আমরা আগামীকাল শুনব। এটা আপিল বিভাগের কার্যতালিকায় শুনানির এক নম্বরে থাকবে।

এসময় আদালতে নিপুণের পক্ষে ছিলেন ব্যারিস্টার রোকন উদ্দিন মাহমুদ ও ব্যারিস্টার মোস্তাফিজুর রহমান খান। আর জায়েদ খানের পক্ষে ছিলেন সিনিয়র এডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন, এডভোকেট আহসানুল করিম ও এডভোকেট নাহিদ সুলতানা যুথি।

গত ২৮ জানুয়ারি বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২২-২৪ মেয়াদের নির্বাচনের ভোট গ্রহণ শেষে প্রধান নির্বাচন কমিশনার পীরজাদা শহিদুল হারুন এফডিসিতে ফলাফল ঘোষণা করেন। তাতে গত দুই মেয়াদে শিল্পী সমিতির সভাপতি থাকা মিশা সওদাগরকে ৪৩ ভোটে হারিয়ে এবার সভাপতি হন ইলিয়াস কাঞ্চন। আর সাধারণ সম্পাদক পদে জায়েদ খানের কাছে ১৩ ভোটে হারেন ইলিয়াস কাঞ্চনের প্যানেলের প্রার্থী নিপুন আক্তার।

তবে, অর্থ দিয়ে ভোট কেনার অভিযোগ এনে নির্বাচনী আপিল বোর্ডে জায়েদ খান ও কার্যকরী পরিষদের সদস্য চুন্নুর পদ বাতিলের আবেদন করেন নিপুন। সে আবেদনের বিষয়ে নির্বাচনী আপিল বোর্ডকে সিদ্ধান্ত নিতে চিঠি দেয় সমাজসেবা অধিদপ্তর।

এরপর জায়েদ খান ও চুন্নুর বিষয়ে বৈঠকে বসে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির নির্বাচনী আপিল বোর্ড। বৈঠক শেষে বোর্ডের প্রধান চলচ্চিত্র নির্মাতা সোহানুর রহমান সোহান জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিল এবং সাধারণ সম্পাদক পদে নিপুনকে বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় বিজয়ী ঘোষণা করেন। পরদিন ইলিয়াস কাঞ্চন ও নিপুন পরিষদের বিজয়ীরা শপথ নেন। বিষয়টি চ্যালেঞ্জ করে হাইকোর্টে রিট করেন জায়েদ খান।

জায়েদ খানের করা রিটের শুনানি নিয়ে হাই কোর্টের একটি ডিভিশন বেঞ্চ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির আপিল বোর্ডের দেয়া জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত স্থগিত করে ৭ ফেব্রুয়ারি আদেশ দেন। এছাড়া নিপুণের অভিযোগের বিষয়ে নির্বাচনী আপিল বোর্ডকে সিদ্ধান্ত নিতে সমাজসেবা অধিদপ্তর যে চিঠি দেয়, তার কার্যকারিতাও স্থগিত করেন আদালত।

পরে ৮ ফেব্রুয়ারি জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত স্থগিত করে হাই কোর্টের দেয়া আদেশের বিরুদ্ধে আপিল বিভাগে আবেদন করেন অভিনেত্রী নিপুন।

সেই আবেদনের প্রেক্ষিতে ৯ ফেব্রুয়ারি চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি নির্বাচনে জায়েদ খানের প্রার্থিতা বাতিলের সিদ্ধান্ত স্থগিত করে দেয়া হাই কোর্টের আদেশ স্থগিত করেন আপিল বিভাগের চেম্বার কোর্ট। একইসঙ্গে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালনের ওপর স্থিতাবস্থাও জারি করেন আদালত। এ বিষয়ে আপিল বিভাগের পূর্ণাঙ্গ বেঞ্চে শুনানির জন্য রোববার দিন ধার্য করা হয়।

চিত্রজগত/ঢালিউড

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

এই সপ্তাহের পাঠকপ্রিয়