মঙ্গলবার, ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

মিশা সওদাগরের জন্মদিন আজ

বাংলা চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় সফল অভিনেতা ও বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির সভাপতি মিশা সওদাগরের আজ ৫৩তম জন্মদিন। ১৯৬৬ সালের এদিনে (৪ জানুয়ারি) ঢাকায় জন্মগ্রহণ করেন তিনি।

বড় পর্দায় দর্শক মাতাচ্ছেন দীর্ঘ তিন দশকেরও বেশি সময় ধরে। শোবিজে খল নায়ক হিসেবে নিজের জায়গা করেছেন পাকাপোক্ত। এখন পর্যন্ত সাত শতাধিক সিনেমায় অভিনয় করে রেকর্ড গড়েছেন মিশা সওদাগর।

১৯৮৬ সালে এফডিসি আয়োজিত নতুন মুখ কার্যক্রমে নির্বাচিত হয়ে সিনেমায় যাত্রা শুরু করেন মিশা সওদাগর। ১৯৯০ সালে ছটকু আহমেদ পরিচালিত ‘চেতনা’ ও ‘অমরসঙ্গী’ সিনেমায় দুটিতে নায়ক হিসেবে অভিনয় করেন তিনি। কিন্তু দুটি সিনেমাতেই সাফল্যের দেখা পাননি। পরবর্তীতে বিভিন্ন পরিচালক তাকে খলচরিত্রে অভিনয়ের পরামর্শ দেন। তমিজ উদ্দিন রিজভী পরিচালিত ‘আশা ভালবাসা’ সিনেমার মাধ্যমে প্রথম খলনায়ক চরিত্রে অভিনয় করেন। ‘যাচ্ছে ভালবাসা’ (১৯৯৪) তার খলনায়ক হিসেবে অভিনয় করা মুক্তিপ্রাপ্ত প্রথম সিনেমা।

পরবর্তীতে বিভিন্ন পরিচালক তাকে খল চরিত্রে অভিনয়ের পরামর্শ দেন। তমিজ উদ্দিন রিজভীর ‘আশা ভালোবাসা’ সিনেমায় ভিলেন চরিত্রে অভিনয় শুরু করেন। আউটডোর শুটিং শেষ করে ফিরে একে একে সাতটি সিনেমায় খলনায়ক চরিত্রে অভিনয় করার জন্য চুক্তিবদ্ধ হন।

এই অভিনেতার নাম আসল নাম শাহিদ হাসান। সেখান থেকে মিশা সওদাগর নাম হওয়ার পেছনে রয়েছে এক মজার ঘটনা। এই খলনায়কের দাদার নাম জুম্মন সওদাগর। স্ত্রী মিতার সঙ্গে দীর্ঘদিন প্রেম করে তিনি বিয়ে করেছেন। স্ত্রী মিতা’র নামের ‘মি’ এবং নিজের নামের ‘শা’ একসঙ্গে করে নিজের নাম রাখেন মিশা। দাদার নামের থেকে সওদাগর টাইটেল নিয়ে নিজের পুরো নামকরণ করেন মিশা সওদাগর।

দীর্ঘ অভিনয় জীবনে মিশা সওদাগর দুইবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার লাভ করেছেন। ‘বস নাম্বার ওয়ান’ সিনেমার জন্য শ্রেষ্ঠ খল চরিত্রের অভিনেতা এবং ‘অল্প অল্প প্রেমের গল্প’ সিনেমার জন্য শ্রেষ্ঠ কৌতুক চরিত্রের অভিনেতা হিসেবে পুরস্কৃত হন তিনি।

চিত্রজগত/ঢালিউড

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

এই সপ্তাহের পাঠকপ্রিয়