শুক্রবার, ৩১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

বাপ্পী লাহিড়ীর শেষকৃত্য সম্পন্ন

নিজের কম্পোজ করা সুর- চলতে চলতে ইয়াদ রাখনা … এর মূর্ছনার মধ্যে পঞ্চভুতে বিলীন হলেন বাপ্পী লাহিড়ী। তবে থেকে গেল তাঁর স্মৃতি। ভিলে পারলে মহাশ্মশানে এই তারকার মুখাগ্নি করেন ছেলে বাপ্পা। বোন রেমা, তাঁর স্বামী, দৌহিত্র উপস্থিত ছিল শেষকৃত্যের এই অনুষ্ঠানে।

সাজতে ভালোবাসতেন বাপ্পী লাহিড়ী। তাই স্ত্রী চিত্রানি শেষবারের মত সাজিয়ে দেন তাঁকে। পরনে ছিল কালো পোশাক। কারণ কালো রং পরতে খুব পছন্দ করতেন বাপ্পী।

ভিলে পারলের মহাশ্মশানে উপস্থিত বাপ্পী অনুরাগীরা আওয়াজ তোলেন- জুম্মা চুম্মা দে দে।

একমাত্র পুত্র বাপ্পা লাহিড়ী আমেরিকা থেকে ফেরার পর শেষকৃত্য সম্পন্ন হয় বাপ্পী লাহিড়ীর। বাপ্পা রাতেই সপরিবারে মুম্বাইয়ে এসে পৌঁছান।

একটা সময় ছিল যখন বাপ্পী লাহিড়ীকে কপি লাহিড়ী বলে ডাকা হত। বিশ্বের বিভিন্ন গানের সুর নিয়ে তিনি ডালি সাজাতেন। বলতেন, “সংগীত হল সমুদ্র। দু একটা নুড়ি পাথর কুড়িয়ে নিলে আপত্তি কোথায়।”

তবে একটা অপূর্ণ ইচ্ছা নিয়ে বাপ্পী লাহিড়ী চলে গেলেন। ইচ্ছা ছিল বিশ্বের ১০০টি দেশের সংগীত শিল্পী আর ১০০ যন্ত্রশিল্পী নিয়ে একটা কনসার্ট করবেন। সেই ইচ্ছা আর পূর্ণ হল না তাঁর।

বুধবার (১৬ ফেব্রুয়ারি) না ফেরার দেশে চলে যান লাহিড়ী। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিলো ৬৯ বছর। ভারতের মুম্বাইয়ের একটি হাসপাতালে মৃত্যু হয় তাঁর।

গত বছর এপ্রিলে করোনা আক্রান্ত হয়ে মুম্বাইয়ের ব্রিচ ক্যান্ডি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছিলেন। কিছুদিন পর সুস্থ হয়ে বাড়ি ফেরেন তিনি।

১৯৭০ থেকে আশির দশকে হিন্দি ছায়াছবির জগতে অন্যতম জনপ্রিয় নাম বাপ্পী লাহিড়ীর। ‘ডিস্কো ডান্সার’, ‘চলতে চলতে’, ‘শরাবি’-তে সুর দিয়েছেন। গেয়েছেন একাধিক গান। ২০২০ সালে তাঁর শেষ গান বাগি- ৩ এর জন্য।

চিত্রজগত/সঙ্গীত

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

এই সপ্তাহের পাঠকপ্রিয়