শুক্রবার, ২২শে সেপ্টেম্বর, ২০২৩ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

ফ্লাডলাইটে রানের বন্যা

বিপিএল-২০২২

তামিম ইকবালের হাফসেঞ্চুরি ও মাহমুদউল্লাহর ব্যাটে ঝড় দেখে অনেকেই মিনিস্টার গ্রুপ ঢাকার জয়ের ব্যাপারে নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিলেন। মিরপুরের উইকেটে ১৮৩ রান তো মোটেও ছোট কোনো সংগ্রহ নয়। কিন্তু সেই রানপাহাড় তাড়া করতে নেমে দুরন্ত বেগে এগিয়ে চলেছে মুশফিকের খুলনা। দুই দলের ব্যাটারদের দাপটে উদ্বোধনী ম্যাচে চার-ছয় দেখতে না পারার আক্ষেপ দূর হয়েছে দর্শকদের। সেই রান উৎসবে ৫ উইকেটে জয় পেয়েছে খুলনা টাইগার্স।

প্রথম ম্যাচে বরিশাল ও চট্টগ্রাম উভয় দলের ব্যাটাররা উইকেটে টিকে থাকার জন্যই সংগ্রাম করেছেন। তাদের হাঁসফাঁস দেখে আরও একটি রান-খরার বিপিএলের শঙ্কা জাগছিল। তবে ফ্লাডলাইটের আলোয় অনুষ্ঠিত ঢাকা-খুলনা লড়াই যেন অন্য বার্তা দিল। দুই দলের ব্যাটাররাই রানের বন্যা বইয়ে দিয়েছেন। যার সূচনা তামিম ও মোহাম্মদ শাহজাদের ব্যাটে। আর শুরুতে উইকেট হারানোর পরও খুলনার ব্যাটাররা ঠিকই ঝড় তোলেন। শুরুটা করেন আন্দ্রে ফ্লেচার। ২৩ বলে ৪৫ রান করেন এ ক্যারিবীয়। তবে ৪২ বলে ৬১ রানের দুর্দান্ত ইনিংস খেলে সবাইকে অবাক করেছেন রনি তালুকদার।

আফগান ব্যাটার শাহজাদ ছিলেন অপ্রতিরোধ্য। তার জন্যই পাওয়ার প্লেতে ৫৬ রান তোলে ঢাকা। শেষ পর্যন্ত ৬৯ রানে ভাঙে ঢাকার ওপেনিং জুটি। ২৭ বলে ৪২ রান করে রান আউট হন শাহজাদ। তামিম ৪১ বলে হাফসেঞ্চুরিতে পৌঁছে আউট হয়ে যান। মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ উইকেটে গিয়েই ছয় মেরে শুরু করেন। শেষ ওভারে ক্যাচ দেওয়ার আগে ২০ বলে ৩৯ রান করেন তিনি।

তবে এই রান বন্যার মাঝেও অবাক এক রান আউট হয়েছেন ঢাকার ক্যারিবিয়ান ‘বিগ হিটার’ আন্দ্রে রাসেল। শট থার্ডম্যানে বল ঠেলে দিয়ে এক রানের জন্য দৌড় শুরু করেন রাসেল। রনি তালুকদারের থ্রো স্টাম্পে লাগার আগেই বিপজ্জনক প্রান্তে ছুটে আসেন মাহমুদউল্লাহ। কিন্তু সবাইকে অবাক করে দিয়ে বল স্টাম্পে লেগে দিক পাল্টে নন-স্ট্রাইক প্রান্তের স্টাম্পের দিকে চলে যায়। আয়েশি ঢঙে দৌড়াতে থাকা রাসেল মনে হয় চিন্তাও করেননি যে বল এখানে আসবে। কিন্তু তিনি যা ভাবেননি, তাই হয়েছে। বল লেগে নন-স্ট্রাইক প্রান্তের বেলস পড়ে গেলে আউট হয়ে যান রাসেল।

চিত্রজগত/বিপিএল-২০২২

সংশ্লিষ্ট সংবাদ