শুক্রবার, ১৪ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

নাট্য দিবস সম্মাননায় ভূষিত মামুনুর রশীদ

নাট্যজন মামুনুর রশীদ। -- চিত্রজগত.কম

প্রতিবছরের মতো এবারও নানা আয়োজনে বিশ্ব নাট্য দিবস ২০২৩ উদ্‌যাপন করা হয়। নাট্যাঙ্গনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখায় এ বছর বিশ্ব নাট্য দিবস সম্মাননা প্রদান করা হয় অভিনেতা, নির্দেশক, নাট্যকার মামুনুর রশীদকে।

বিশ্বের সব নাট্যকর্মী ও শিল্পীর মধ্যে সৌহার্দ্য স্থাপন ও নাটকের শক্তিকে নতুন করে আবিষ্কার করার লক্ষ্যে সোমবার (২৭ মার্চ) শিল্পকলা একাডেমিতে দিবসটি পালন করে শিল্পকলা একাডেমি, আইটিআই বাংলাদেশ কেন্দ্র, গ্রুপ থিয়েটার ফেডারেশন ও পথনাটক পরিষদ।

সোমবার (২৭ মার্চ) সন্ধ্যা ৭টায় জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে মামুনুর রশীদসহ গত তিন বছরে সম্মাননাপ্রাপ্ত শিল্পীদের সম্মাননায় ভূষিত করা হয়। এর আগে গত তিন বছরে নাট্য দিবস সম্মাননা পেয়েছেন—২০২২ সালে মান্নান হীরা (মরণোত্তর), ২০২১ সালে লিলি চৌধুরী (মরণোত্তর) এবং ২০২০ সালে মিলন চৌধুরী ও পরেশ আচার্য্য। মাঝখানে করোনাভাইরাস মহামারির কারণে তাঁদের হাতে সম্মাননা স্মারক তুলে দেওয়া হয়নি।

বিকেল পাঁচটায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় নাট্যশালা থেকে চারুকলা ভবন পর্যন্ত আনন্দ শোভাযাত্রার মধ্য দিয়ে আনুষ্ঠানিকতা শুরু হয়। সন্ধ্যা ছয়টায় জাতীয় চিত্রশালা প্লাজায় প্রীতি সম্মিলনীর পর জাতীয় নাট্যশালার মূল মিলনায়তনে সাতটায় রয়েছে আলোচনা সভা। এতে নাট্য দিবসের আন্তর্জাতিক বাণী পাঠ করা হয়। প্রতিবছর আইটিআইর একজন বিশিষ্টজনকে এটি দেওয়ার আমন্ত্রণ জানানো হয়। এ বছর বাণী দিয়েছেন মিসরীয় অভিনেত্রী সামিহা আইয়ুব। জাতীয় বাণী পাঠ করেন লিয়াকত আলী, নাট্য দিবস বক্তৃতা করেন মাসুদ আলী খান। রাত আটটায় সমাপনী আয়োজনে ছিলো সাংস্কৃতিক পরিবেশনা; শিল্পীকলা একাডেমির শিল্পীরা এতে গান ও নৃত্য পরিবেশন করেন।

উল্লেখ্য ১৯৬১ সালের জুন মাসে ভিয়েনায় অনুষ্ঠিত ইন্টারন্যাশনাল থিয়েটার ইনস্টিটিউটের (আইটিআই) নবম কংগ্রেসে বিশ্ব থিয়েটার দিবস প্রবর্তনের প্রস্তাব গৃহীত হয়। পরের বছর (১৯৬২ সালে) প্যারিসে অনুষ্ঠেয় থিয়েটার অব নেশনস উৎসবের সূচনার দিনটি, অর্থাৎ ২৭ মার্চ প্রতিবছর বিশ্ব নাট্য দিবস উদ্‌যাপনের সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। দিবসটি পালনের মূল লক্ষ্য হচ্ছে, বিশ্বের সব দেশের নাট্যকর্মীর মধ্যে ঐক্য স্থাপন, সম্প্রীতি ও উদ্দীপনার সৃষ্টি এবং এর মাধ্যমে নাটকের উন্নয়ন সাধন করা। বিভিন্ন দেশে বিদ্যমান ইন্টারন্যাশনাল থিয়েটার ইনস্টিটিউটের (আইটিআই) স্থানীয় কেন্দ্রগুলো প্রধানত এই দিবস পালনে কর্মসূচি গ্রহণ করে।

চিত্রজগত ডটকম/মঞ্চ

সংশ্লিষ্ট সংবাদ