সোমবার, ৪ঠা মার্চ, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

চিত্রসম্পাদক ও পরিচালক সৈয়দ আউয়াল’র নবম মৃত্যুবার্ষিকী আজ

চিত্রসম্পাদক-পরিচালক সৈয়দ আউয়াল এর নবম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। তিনি ২০১৩ সালের ২৫ জানুয়ারী, মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৭ বছর। প্রয়াত এই গুণী মানুষটির প্রতি জানাই গভীর শ্রদ্ধা। তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করি।

সৈয়দ আউয়াল (সৈয়দ মোহাম্মদ আউয়াল) ১৯৩৬ সালের ১০ আগস্ট, কুমিল্লা জেলায় জন্মগ্রহণ করেন। ১৯৬০ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত, ফতেহ লোহানী পরিচালিত ‘আসিয়া’ ছবির সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করার মাধ্যমে তিনি চলচ্চিত্রের সাথে সংশ্লিষ্ট হন। এহতেশাম, মুস্তাফিজ এবং ওবায়েদ-উল হকের সাথেও সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ করেছেন।

সৈয়দ মোহাম্মদ আউয়াল পরিচালিত প্রথম চলচ্চিত্র ‘গুনাই বিবি’ মুক্তিপায় ১৯৬৬ সালে। এছাড়া’বালা’ (যৌথভাবে শিবলি সাদিকের সাথে), ‘অপরিচিতা’, ‘অন্তরঙ্গ’ ও ‘দুবাইওয়ালা’ তাঁর পরিচালনায় নির্মিত হয়েছে।

সৈয়দ মোহাম্মদ আউয়াল মূলত চলচ্চিত্র সম্পাদক হিসেবেই সর্বাধিক পরিচিত ছিলেন। তিনি সম্পাদনার কাজ শিখেছেন আশুঘোষ, প্রণব মুখার্জী ও বশীর হোসেনের মতো বিখ্যাত চিত্রসম্পাদকদের কাছ থেকে। তাঁর সম্পাদনায় যেসব চলচ্চিত্র নির্মিত হয়েছে তারমধ্যে উল্লেখযোগ্য- ‘বাজিমাৎ’, ‘পাগলা রাজা’, ‘সুন্দরী’, ‘জোকার’, ‘সুখে থাকো’, ‘মৌচোর’, ‘ভালো মানুষ’, ‘কলমীলতা’, ‘দেবদাস’, ‘তালাক’, ‘বদনাম’, ‘অভিযান’, ‘সৎভাই’, ‘তওবা’, ‘চাঁপাডাঙার বউ’, ‘মরণের পরে’, ‘সন্তান যখন শত্রু’ প্রভৃতি।

সৈয়দ মোহাম্মদ আউয়াল একজন নৃত্যশিল্পী ও নাট্যাভিনেতা হিসেবেও বেশ পরিচিত ছিলেন।

চলচ্চিত্র সম্পাদনায় তিনি তিনবার শ্রেষ্ঠ চিত্রসম্পাদক হিসেবে বাচসাস চলচ্চিত্র পুরস্কার অর্জন করেন। ‘ভালো মানুষ’, ‘চাঁপাডাঙার বউ’ ও ‘সন্তান যখন শত্রু’ চলচ্চিত্রের জন্য তিনি এই পুরস্কার পান।

সৈয়দ মোহাম্মদ আউয়াল অল্পসংখ্যক চলচ্চিত্র পরিচালানা করলেও, একজন ভালো মানের চিত্রপরিচালক হিসেবে নিজেকে উপস্থাপন করতে পেরেছেন অনায়াসে। একজন প্রতিভাবান মেধাবী চিত্রসম্পাদক হিসেবেও ছিলেন সুপরিচিত। অনেক ভালো ভালো চলচ্চিত্রের সম্পাদনার সাথে জড়িত ছিলেন তিনি।

চলচ্চিত্রাঙ্গনে একজন নম্র-ভদ্র ভালো মানুষ হিসেবে সুপরিচিত ছিলেন সৈয়দ মোহাম্মদ আউয়াল। তিনি তাঁর কর্মগুণে স্মরণীয় হয়ে থাকবেন বাংলাদেশের চলচ্চিত্রশিল্পে।

সংবাদচিত্র/ঢালিউড

সংশ্লিষ্ট সংবাদ