শুক্রবার, ৩১শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

ঢাকাই সিনেমার মিষ্টি নায়িকা

কবরীর জন্মদিন আজ

ফাইল ছবি -- চিত্রজগত.কম

ঢাকাই সিনেমার মিষ্টি মেয়েখ্যাত অভিনেত্রী সারাহ বেগম কবরী জন্মদিন আজ।

১৯৫২ সালের ১৯ জুলাই তিনি জন্ম গ্রহন করেন। বাবা কৃষ্ণদাস পাল। মা শ্রীমতী লাবণ্য প্রভা পাল। তার বাবার দুই বিয়ে। ছোট স্ত্রীর দ্বিতীয় মেয়ে মিনা পাল (কবরী)। সৎমায়ের দুই মেয়ে, দুই ছেলে। ছোট মায়ের পাঁচ ছেলে, চার মেয়ে। বিশাল পরিবার হলেও কবরী নিজেকে খুব অল্প বয়সেই আলাদা করেছেন; নিজ গুণে। ১৯৬৩ সালে মাত্র ১৩ বছর বয়সে নৃত্যশিল্পী হিসেবে মঞ্চে উঠেছিলেন তিনি। কাজ করেন টেলিভিশনে। এরপর দ্রুত যুক্ত হন চলচ্চিত্রে।

২০২১ সালের ১৭ এপ্রিল মহামারি করোনায় আক্রান্ত হয়ে পালোকগমন করেন কবরী।

প্রায় সাড়ে পাঁচ দশক আগে ১৯৬৪ সালে সুভাষ দত্তের ‘সুতরাং’ দিয়ে চলচ্চিত্রে পা রাখেন কবরী। তারপর একের পর এক ছবি দিয়ে জয় করতে থাকেন দর্শক হৃদয়, হয়ে ওঠেন বাংলা চলচ্চিত্রের মিষ্টি মেয়ে। সে সময়ের সব সুপারস্টারই অভিনয় করেছেন তার সঙ্গে। তালিকায় আছে রাজ্জাক, ফারুক, সোহেল রানা, উজ্জ্বল, জাফর ইকবাল ও বুলবুল আহমেদের মতো অভিনেতার নাম। এরপর কবরী জড়িয়েছেন রাজনীতিতে। নির্মাণ করেছেন চলচ্চিত্রও। সর্বশেষ করছিলেন ‘এই তুমি সেই তুমি’ ছবি পরিচালনা।

প্রিয় অভিনেত্রীর জন্মদিনে চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির আয়োজন

এদিকে কবরীর জন্মদিনকে ঘিরে বিশেষ আয়োজন করেছে বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতি।
থাকছে কেক কাটা ও দোয়ার অনুষ্ঠান। আর এটি হবে সমিতির কার্যালয়েই। বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন শিল্পী সমিতির সহ-সাধারণ সম্পাদক চিত্রনায়ক সাইমন সাদিক।
তিনি বলেন, ‘বরণ্যে এ শিল্পীর জন্মদিনটায় আমরা তাকে স্মরণ করে সম্মান জানাতে চাই। তাই আমাদের নিজস্ব পরিসরে আয়োজন করেছি। সন্ধ্যা ৭টা ৩০ মিনিটে কেক কাটা ও দোয়া মাহফিলের হবে।’


একনজরে কবরী-

*১৯৫০ সালের ১৯ জুলাই চট্টগ্রামের বাঁশখালীতে জন্ম কবরীর। আসল নাম ছিল মিনা পাল। বাবা শ্রীকৃষ্ণ দাস পাল ও মা লাবণ্য প্রভা পাল।

*১৯৬৩ সালে মাত্র ১৩ বছর বয়সে নৃত্যশিল্পী হিসেবে মঞ্চে উঠেছিলেন তিনি। তারপর টেলিভিশন ও সবশেষে সিনেমায়।

*১৯৬৪ সালে মাত্র ১৪ বছর বয়সে জীবনে প্রথম সিনে ক্যামেরার সামনে দাঁড়ান ‘সুতরাং’ ছবির মাধ্যমে।

*১৯৭৫ সালে নায়ক ফারুকের সঙ্গে ‘সুজন সখী’ সিনেমা কবরীকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে যায়।

*কবরী প্রথমে বিয়ে করেন চিত্ত চৌধুরীকে। বিচ্ছেদের পর ১৯৭৮ সালে বিয়ে করেন সফিউদ্দীন সরোয়ারকে। ২০০৮ সালে তাদেরও বিচ্ছেদ হয়ে যায়। কবরী পাঁচ সন্তানের মা।

*২০০৮ সালে বাংলাদেশ আওয়ামী লীগ থেকে জাতীয় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন তিনি।

*চলতি বছরেই কবরী শেষ করেন তার পরিচালিত দ্বিতীয় ছবি ‘এই তুমি সেই তুমি’র শুটিং।

*এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে তিনি হাসপাতালে ভর্তি হন। অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে শেখ রাসেল গ্যাস্ট্রোলিভার হাসপাতালের আইসিইউতে নেওয়া হয়। সেখানেই ১৭ এপ্রিল মারা যান তিনি।

চিত্রজগত/স্মরণীয় বরণীয়

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

এই সপ্তাহের পাঠকপ্রিয়