মঙ্গলবার, ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

এস আই টুটুলের দ্বিতীয় বিয়ে প্রকাশ্যে

এসআই টুটুল-সোনিয়া -- চিত্রজগত.কম

দেশের জনপ্রিয় সংগীত শিল্পী এসআই টুটুল আবার বিয়ে করেছেন। পাত্রী যুক্তরাষ্ট্রের নিউইয়র্কের পরিচিত মুখ উপস্থাপিকা শারমিনা সিরাজ সোনিয়া। গত ৪ জুলাই আমেরিকার স্বাধীনতা দিবসে তাদের বিয়ে হয়।

দীর্ঘদিন ধরেই জনপ্রিয় অভিনয় শিল্পী তানিয়া আহমেদের সঙ্গে এসআই টুটুলের সম্পর্ক ভালো যাচ্ছিল না। ২০১৭ সাল থেকে তারা এক রকম আলাদা থাকতে শুরু করেন। সবশেষ গত বছর তানিয়ার সঙ্গে ডিভোর্স হয় টুটুলের। তাদের দুটি ছেলে রয়েছে। এর আগে তানিয়ার আগের পক্ষের আরও একটি ছেলে রয়েছে।

অপরদিকে, সোনিয়ার প্রথম বিয়ে ভেঙে যায় ২০১১ সালে। ওই সংসারে তার একটি ছেলে রয়েছে।

দীর্ঘ দুই বছর ধরে গ্রিনকার্ড নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন এস আই টুটুল। তবে গানের কাজে বছরের বেশির ভাগ সময় তিনি বাংলাদেশেই থাকেন। আর যুক্তরাষ্ট্রের নাগরিক শারমিনা সোনিয়া দীর্ঘদিন ধরে নিউইয়র্কে থাকছেন। তিনি কমিউনিটিতে বিভিন্ন অনুষ্ঠান উপস্থাপনার পাশাপাশি বিখ্যাত একটি ঘড়ি কোম্পানির ব্র্যান্ড অ্যাম্বাসেডর। এ ছাড়াও তিনি কিছুদিন বাংলাদেশের এটিএন মিউজিক ও এশিয়ান টিভিতে উপস্থাপনার কাজ করেছেন।

জানা গেছে, এ বছর মার্চে নিউইয়র্কে প্রবাসী তরুণ প্রজন্মের শিল্পীদের নিয়ে রিয়েলটি শো আরটিভির ‘বাংলার গায়েন’ অনুষ্ঠান করতে গিয়ে শারমিনা সিরাজ সোনিয়ার সঙ্গে ঘনিষ্ঠতা হয় এস আই টুটুলের। ওই অনুষ্ঠানে টুটুল ছিলেন বিচারক আর সোনিয়া উপস্থাপনা করেন। তিন মাসের জানাশোনার পর টুটুল সোনিয়াকে বিয়ের প্রস্তাব দেন।

এরপর গত ৪ জুলাই স্বল্প সংখ্যক মানুষের উপস্থিতিতে অত্যন্ত গোপনীয় ভাবে মুসলিম রীতি অনুযায়ী টুটুল ও সোনিয়ার বিয়ে সম্পন্ন হয়। সময় সংবাদের কাছে নিজেদের বিয়ের কথা অকপটে স্বীকার করেছেন তারা।

এসআই টুটুল বলেন, আরটিভির বাংলার গায়েনের আগে বিভিন্ন অনুষ্ঠানে আমাদের দেখা হয়েছে, হাই-হ্যালোর বেশি কিছু হয়নি। কদিন ধরে আমি একাকীত্বে ভুগছিলাম। সংগীত আমার সাধনা, তা করতে গিয়ে অনেক সময় নিজেকে, পরিবারকে ঠিক মতো সময় দিতে পারি না। আমার কঠিন সময়ে আমি একজন সঙ্গী খুঁজছিলাম। সেই সময় সোনিয়ার মতো মেধাবী, মায়াবতী একজনকে পেয়ে গেলাম।

শারমিনা সিরাজ সোনিয়া বলেন, দীর্ঘদিন ধরে আমি একা। মনের মতো একজন জীবন সঙ্গীর খোঁজ আমিও করছিলাম। আমার পরিবার, বন্ধু-বান্ধবরাও চাইছিল বিয়ে করি। এমন সময় টুটুল আমাকে বিয়ের প্রস্তাব দেন। তিনি আমাকে এত সুন্দর ভাবে প্রপোজ করেছেন যে আমি না করার মতো কোনো কারণ খুঁজে পাইনি।

সোনিয়া বলেন, এসআই টুটুল বড় মাপের একজন গায়ক, তার চেয়েও বড় কথা, তিনি একজন ভালো মানুষ। আমি তার মতো একজনকে স্বামী হিসেবে পেয়ে সত্যিই খুব সৌভাগ্যবতী।

টুটুল ও সোনিয়া জানান, খুব শিগগিরই তারা আনুষ্ঠানিকভাবে বিয়ের কথা সবাইকে জানাবেন। তারা দাম্পত্য জীবনের সুখ কামনায় সবার দোয়া চেয়েছেন।

চিত্রজগত/সঙ্গীত

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

এই সপ্তাহের পাঠকপ্রিয়