মঙ্গলবার, ১৬ই এপ্রিল, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

এক নজরে এবারের ‘গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডস’

জমকালো আয়োজনে যুক্তরাষ্ট্রের লাস ভেগাসে অনুষ্ঠিত হয়ে গেল মিউজিকের অস্কারখ্যাত ‘গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডস’ এর ৬৪তম আসর।

এক নজরে এবারের গ্র্যামি আন্তর্জাতিক ডেস্ক ২ মিনিটে পড়ুন এ বছর অ্যালবাম অব দ্য ইয়ারের খেতাব জিতে নিয়েছে জন বাতিস্তের ‘উই আর’। এ ছাড়া, ‘রেকর্ড অব দ্য ইয়ার’ এবং ‘সং অব দ্য ইয়ার’ জিতে নিয়েছে সিল্ক সনিকের ‘লিভ দ্য ডোর ওপেন’।

লাস ভেগাসের এমজিএম গ্র্যান্ড গার্ডেন এরেনা কানায় কানায় পূর্ণ। বিশ্ব সংগীতের সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ আসর গ্র্যামির মঞ্চে নামিদামি সব সংগীত তারকা। সোনালি রঙের গ্রামোফোনের আদলে তৈরি ট্রফিটি যাদের স্বপ্ন। যারা বিশ্ব সংগীত ভালোবাসেন তারা মুখিয়ে থাকেন জানতে, তাদের প্রিয় শিল্পী কি পাচ্ছেন এবারের পুরস্কারটি?

এ বছর অত্যন্ত সম্মানজনক পুরস্কার রেকর্ড অব দ্য ইয়ারের জিতেছে সিল্ক সনিকের লিভ দ্য ডোর ওপেন। শুধু তাই নয়, সং অব দ্য ইয়াও এই গানটি। গ্র্যামি অ্যাওয়ার্ডসের এই আসরে জন বাতিস্তে সর্বোচ্চ মনোনয়ন পান। মোট ১১টি শাখায় মনোনয়ন পান তিনি। অবশেষে অ্যালবাম অব দ্য ইয়ার হয়েছে জন বাতিস্তের উই আর অ্যালবামটি। তার এই অ্যালবামটি ব্ল্যাক লাইভ ম্যাটারে উজ্জীবিত হয়ে করা । তিনি বলেন, আমি মনে প্রাণে বিশ্বাস করি, সেরা শিল্পী, সেরা নৃত্যশিল্পী, সেরা অভনয়শিল্পী বলে কিছু নেই। কারণ এগুলো হলো সৃজনশীল শিল্প। এগুলো মানুষের মনে গেঁথে যায় তখনই যখন তারা তা অনুভব করে।

১০ জনের সঙ্গে লড়াইয়ে এবারের নবাগত শিল্পীর তকমাটি পেয়েছেন ১৯ বছর বয়সী অলিভিয়া রদ্রিগো। সেরা পপ একক পারফরমেন্সের পুরস্কারটিও জিতেছেন তিনি। শুধু তাই নয়, বেস্ট পপ ভোকাল অ্যালবাম হয়েছে অলিভিয়ার ‘সোর’।
তিনি বলেন, আমি খুব খুশি, এটা আমার সবচেয়ে বড় স্বপ্ন ছিল, যা সত্যি হয়েছে। অনেক অনেক ধন্যবাদ আমাকে এ পুরস্কার দেওয়ার জন্য।

সেরা রক গানের পুরস্কার পেয়েছে ফুও ফাইটার্সের ওয়েটিং অন অ্যা ওয়ার। গান আর শিল্পীদের পুরস্কারপ্রাত্তির মাঝেই স্মরণ করা হয় ইউক্রেন যুদ্ধের ভয়াবহতার কথা। আসরে ভিডিও বার্তা দেন ইউক্রেনের প্রেসিডেন্ট ভলোদিমির জেলেনস্কি। এরপরই একজন ইউক্রেনীয় কবির লেখা এবং দুজন ইউক্রেনীয় সুরকারের একটি গান পরিবেশন করেন জনপ্রিয় শিল্পী জন লিজেন্ড।

এবারের অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেছে কোরীয় পপ ব্যান্ড বিটিএস। এ ছাড়া অস্কারজয়ী শিল্পী বিলি আইলিশ, জাস্টিন বিবার, লেডিগাগাসহ জনপ্রিয় শিল্পীরা নিজেদের পারফরমেন্সে মাতিয়েছেন মঞ্চ। রেকর্ডিং একাডেমির ১১ হাজার সদস্যের ভোটে নির্বাচিত হয়েছেন জয়ীরা। ১৯৫৯ সালে প্রথম আয়োজনের পর থেকে প্রতি বছর ২৫টিরও বেশি শাখায় এ পুরস্কার দেওয়া হয়।

চিত্রজগত/উৎসব

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

এই সপ্তাহের পাঠকপ্রিয়