শনিবার, ২৪শে ফেব্রুয়ারি, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

ঈদে আসছে বর্ণাঢ্য ‘ইত্যাদি’

প্রতি বছরের মত এবারও ঈদ আনন্দের সাথে দর্শকদের জন্য বাড়তি আনন্দ নিয়ে আসছে হানিফ সংকেত এর ইত্যাদি।

বৃষ্টি ঝুঁকি এড়াতে এবারও ঈদের ইত্যাদি ধারণ করা হয়েছে মিরপুর শহীদ সোহরাওয়ার্দী ইনডোর স্টেডিয়ামে। ইনডোর স্টেডিয়ামের প্রায় তিন ভাগের এক ভাগ স্থান জুড়ে নির্মাণ করা হয়েছিল নান্দনিক সেট। বর্ণাঢ্য এই আয়োজনে পুরো অনুষ্ঠানটিতে এক উৎসবের আমেজ তৈরি হয়েছিল।

বর্ণাঢ্য আয়োজনে নির্মিত এবারও ইত্যাদি শুরু করা হয়েছে-‘ও মন রমজানের ঐ রোজার শেষে এলো খুশীর ঈদ’ এই গানটি দিয়ে। নানা শ্রেণি-পেশার মানুষের অংশগ্রহণের ধারাবাহিকতায় এবারে নৃত্যে-ছন্দে-আনন্দে চিরচেনা এই গানটি পরিবেশন করবেন করোনা যোদ্ধাদের মধ্যে থেকে বিশেষ ক’জন কণ্ঠশিল্পী। তাদের সঙ্গে নৃত্যে অংশগ্রহণ করেছেন দুই শতাধিক সেবিকা।

এবারের ঈদ ইত্যাদিতে একটি দেশাত্মবোধক গান গেয়েছেন বরেণ্য সংগীতশিল্পী সাবিনা ইয়াসমিনসহ ৫ জন জনপ্রিয় সংগীত তারকা রবি চৌধুরী, শুভ্রদেব, এসআই টুটুল ও বাপ্পা মজুমদার। গানটি লিখেছেন খ্যাতিমান গীতিকার মোহাম্মদ রফিকউজ্জামান, সুর করেছেন হানিফ সংকেত এবং সংগীত পরিচালনা করেছেন মেহেদী। গানটির চিত্রায়নে শিল্পীদের সঙ্গে অংশ নিয়েছে শতাধিক শিক্ষার্থী।

এবারের ইত্যাদিতে নৃত্যেও বৈচিত্র্য এনেছেন হানিফ সংকেত। আমাদের পারিবারিক বন্ধন নিয়ে একটি বিশেষ নৃত্যে অংশগ্রহণ করেছেন জনপ্রিয় নৃত্যজুটি শিবলী-নিপা ও তাদের দল। আর ভিন্ন পরিকল্পনার এই নৃত্যটিতে অতিথি হিসেবে অংশগ্রহণ করেছেন অভিনয় শিল্পী দিলারা জামান, জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায় ও আবুল হায়াত।
ঈদ ইত্যাদির নানান চমকের একটি হচ্ছে দস্যু চরিত্রের ৪ তারকার সংলাপ। আর কাল্পনিক এই দস্যু চরিত্রগুলোতে অভিনয় করেছেন দর্শকপ্রিয় চারজন অভিনয় তারকা-শহীদুজ্জামান সেলিম, সালাহউদ্দিন লাভলু, মীর সাব্বির ও তানিয়া আহমেদ।

এবারের ঈদ ইত্যাদিতে সুরে সুরে গানের গল্পে ফেরদৌস তারিনের অভিনয়ের মাধ্যমে উঠে এসেছে এক দম্পতির তিন সময়ের ঈদের কথা।
অতিমারি করোনা ও তার পার্শ্ব প্রভাব নিয়ে একটি ভিন্নধর্মী গান গেয়েছেন অভিনয় তারকা চঞ্চল চৌধুরী ও মেহের আফরোজ শাওন।

সমাজের নানান অনিয়ম-অসঙ্গতির উপরে তৈরি করা হয়েছে এবারের দলীয় সংগীত। এবার এই পর্বে অংশগ্রহণ করেছেন ঢাকাই সিনেমার জনপ্রিয় তারকা জুটি সিয়াম আহমেদ ও পূজা চেরি। সাথে আছে ‘ইত্যাদি’র নিয়মিত নৃত্যশিল্পীবৃন্দ।
রয়েছে দর্শক প্রিয় পর্ব-বিদেশিদের অভিনয়-নৃত্য-গীত।
দর্শক পর্বে ৬ জন দর্শকের মুখোমুখি হয়েছেন অভিনয় তারকা অপূর্ব ও পূর্ণিমা।

বিদেশে ঈদের খাবার এবং গ্রীস প্রবাসী ক’জন কৃষিকর্মীর প্রবাসের ঈদের অনুভূতি নিয়ে রয়েছে গ্রীসে ধারণকৃত একটি প্রতিবেদন।
এছাড়াও অনুষ্ঠানে মামা-ভাগ্নে, নানী-নাতি ইত্যাদি নিয়মিত পর্বসহ বিভিন্ন সামাজিক অসঙ্গতি ও সমসাময়িক ঘটনা নিয়ে রয়েছে বেশ কয়েকটি বিদ্রুপাত্মক নাট্যাংশ।

ইত্যাদির শিল্প নিদের্শনা করেছেন যথারীতি মুকিমূল আনোয়ার মুকিম। পরিচালকের সহকারী হিসাবে ছিলেন রানা সরকার ও মামুন মোহাম্মদ।
ইত্যাদি রচনা, পরিচালনা ও উপস্থাপনা করেছেন হানিফ সংকেত। নির্মাণ করেছে ফাগুন অডিও ভিশন, স্পন্সর করেছে কেয়া কসমেটিকস লিমিটেড। ঈদের বিশেষ ইত্যাদি একযোগে বিটিভি ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে প্রচারিত হবে ঈদের পরদিন রাত ০৮টার বাংলা সংবাদের পর। সূত্র: হানিফ সংকেত-এর ফেসবুক পেজ

চিত্রজগত/টেলিভিশন

সংশ্লিষ্ট সংবাদ

এই সপ্তাহের পাঠকপ্রিয়