রবিবার, ১৬ই জুন, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ

শিরোনাম

আজিজুর রহমান বুলির মৃত্যুবার্ষিকী আজ

আজিজুর রহমান বুলি। -- চিত্রজগত.কম

আজিজুর রহমান বুলি। ঢাকাই সিনেমার এক সময়ের প্রভাবশালী প্রযোজক-পরিচালক ছিলেন তিনি। স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে যাঁদের নেতৃত্বে-অবদানে আমাদের দেশের চলচ্চিত্র শিল্প বলিয়ান হয়েছে, আজিজুর রহমান বুলি তাদেেই একজন। তাঁর নির্মিত প্রায় সব ছবিই ব্যবসাসফল ও জনপ্রিয় হয়েছে। বাংলাদেশের তিনিই প্রথম প্রযোজক-পরিচালক যাঁর ছবি হলিউডে চিত্রায়ণ করা হয়েছে। তখনকার সময়ে যা ছিল অত্যন্ত দুঃসাধ্য কাজ। সেই সময়ে তাঁর অনেক সিনেমাই বিদেশে চিত্রায়িত হয়েছে।

আমাদের দেশের সফল চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্ব আজিজুর রহমান বুলি’র প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী আজ। তিনি ২০২২ সালের ২৪ অক্টোবর (২৩ অক্টোবর দিবাগত রাত আনুমানিক সাড়ে তিনটা) রাজধানীর উত্তরার একটি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেন। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৭৬ বছর। চিত্রজগত পরিবারের পক্ষ থেকে প্রয়াত এই চলচ্চিত্র ব্যক্তিত্বর প্রতি জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা। তাঁর বিদেহী আত্মার মাগফেরাত কামনা করি।

আজিজুর রহমান বুলি ১৯৪৬ সালের ১লা মে, পুরান ঢাকার বংশালে, জন্মগ্রহণ করেন।
১৯৭১ সালে মুক্তিপ্রাপ্ত “নাচের পুতুল” চলচ্চিত্রের মাধ্যমে প্রযোজক হিসেবে তিনি চলচ্চিত্রের সাথে জড়িত হন। প্রথম ছবি প্রযোজনা করেই তিনি দেশজুড়ে ব্যাপক খ্যাতি ও পরিচিতি লাভ করেন। এরপর একেরপর এক ব্যবসাসফল ছবি প্রযোজনা করেছেন তিনি।

আজিজুর রহমান বুলি প্রথম পরিচালনায় আসেন “শেষ উত্তর” ছবির মাধ্যমে, এই ছবিটি মুক্তিপায় ১৯৮০ সালে। আজিজুর রহমান বুলি প্রযোজিত-পরিচালিত অন্যান্য ছবিসমূহ- ‘মাস্তান’, ‘প্রিয়তমা’, ‘মতিমহল’, ‘লাভ ইন সিঙ্গাপুর’, ‘হিম্মতওয়ালী’, ‘নেপালি মেয়ে’, ‘বাপের বেটা’, ‘সন্দেহ’, ‘দেশ-বিদেশ’, ‘লালু সরদার’, ‘আমার সংসার’, ‘সমস্যা’, ‘নবাবজাদী’, ‘শাদী মোবারক’, ‘কালু গুণ্ডা’, ‘রঙিন প্রাণ সজনী’ (কলকাতা), ‘টক্কর’, ‘জুলি’, ‘বাপবেটা ৪২০’, ‘রাজা-রানী-বাদশা’, ‘ডান্ডা মেরে ঠান্ডা’, ‘বন্ধু যখন শত্রু’ উল্লেখযোগ্য।

ঢাকাই সিনেমার এক সময়ের প্রভাবশালী প্রযোজক-পরিচালক আজিজুর রহমান বুলি প্রায় ৪০টিরও বেশী চলচ্চিত্র প্রযোজনা-পরিচালনা ও পরিবেশনা করেন। তাঁর নির্মিত চলচ্চিত্র ও চলচ্চিত্রের শিল্পী-কলাকুশলীরা বিভিন্নভাবে পুরস্কৃত হয়েছেন, পুরস্কৃত হয়েছেন তিনি নিজেও।
আমেরিকার মরেনভেলি শহরের বাংলাদেশী আমেরিকান ক্যালিফোর্নিয়া প্রবাসী বাংলাদেশীদের পক্ষ থেকে বিএসসিএস আজীবন সম্মাননা ২০১৪ প্রদান করা হয় তাঁকে।

আজিজুর রহমান বুলি’র ‘দেশ-বিদেশ’ চলচ্চিত্রটি প্রথম ঢালিউড মুভি যেটি, হলিউডে চিত্রায়ণ করা হয়েছে। তাঁর অধিকাংশ সিনেমাই বিদেশে ও দেশের বৈচিত্র্যময় লোকেশনে চিত্রায়িত হতো। এ কারণে ইন্ডাস্ট্রিতে তিনি ‘পর্যটক প্রযোজক-পরিচালক’ হিসেবেও পরিচিতি লাভ করে ছিলেন।

বাংলাদেশ চলচ্চিত্র প্রযোজক পরিবেশক সমিতির সভাপতি হিসেবে সফলভাবে দায়িত্ব পালন করে গেছেন আজিজুর রহমান বুলি। চিত্র নায়ক মাহমুদ কলি তাঁর ছোট ভাই। চিত্রনায়িকা অঞ্জনা তাঁর স্ত্রী (সাবেক) ছিলেন।

তিনি ঢাকা ক্লাব, উত্তরা ক্লাব ও বাংলাদেশ ফিল্ম ক্লাবের সদস্য ছিলেন। এছাড়াও বিভিন্ন সামাজিক সাংস্কৃতিক সংগঠনের সঙ্গে জড়িত ছিলেন।

বাংলাদেশের চলচ্চিত্রসংশ্লিষ্টদের কাছে অতি ভদ্র ও ভালো মানুষ হিসেবে খুবই সুপরিচিত ছিলেন আজিজুর রহমান বুলি। বাংলাদেশের চলচ্চিত্রশিল্পে তাঁর অবদান অনস্বীকার্য।

চিত্রজগত ডটকম/স্মরণীয় বরণীয়

সংশ্লিষ্ট সংবাদ